তিল ভর্তা

তিল থেকে তেল হয় এটা সবাই জানে। তেমনি তিল থেকে তৈরি করা যায় মজাদার ও সুস্বাদু ভর্তা। তবে তিলের ভর্তা তৈরি করতে অনেক সময় ও একটু কষ্ট সাধন করতে হবে। উপকরনঃ তিল, তেল, লবণ, পেয়াজ, রসুন ও শুকনা বা কাঁচা মরিচ পরিমান মত। প্রনালীঃ প্রথমে পরিমানমত তিল নিয়ে রোদে গরম করে নিন। তারপর যাতা বা কুলা আর শিল দিয়ে পিশে তিলের গায়ের খোসাটা ছাড়িয়ে নিন। প্যানে পরিমান মত তিল দিয়ে হালকা ভেজে অন্য পাত্রে রেখে দিন। এবার সামান্য তেল দিয়ে মরিচ, পেয়াজ ও রসুন হালকা বাদামী রঙ এ ভেজে নিন। ভাজা তিল পাটায় বেটে মিহি করে নিন। তারপর ভাজা মরিচ, পেয়াজ , রসুন ও পরি...

টক-মিষ্টি বেগুন

সবজির মধ্যে বেগুন অনেকেরই পছন্দ এবং বেগুনকে বিভিন্নভাবে খাওয়া যায়। বেগুনের পদের যেনো শেষ নেই। দারুন স্বাদের এই টক মিষ্টি বেগুন পরিবেশনেও খুবই চমত্কার। উপকরণ: ছোট গোল বেগুন, লবন, সয়াবিন তেল, পাঁচফোড়ন, পিয়াজ বাটা, আদাবাটা, রসুনবাটা, হলুদের গুড়া, মরিচের গুড়া, ধনিয়ার গুড়া, জিরার গুড়া, ধনিয়া পাতা, তেতুল, ও চিনি। প্রণালী: প্রথমে বেগুন ভালোভাবে ধুয়ে টুথপিক দিয়ে বেগুনের গায়ে ছোট ছোট ছিদ্র করে নিন। সামান্য লবন দিয়ে বেগুনটি মাখিয়ে রাখুন। তেতুলের টক তৈরীর জন্য একটি পাত্রে পরিমানমতো পানি নিয়ে তাতে তেতুল ভিজিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণ পড়ে পান...

বেগুন ও কুমড়ো বড়ি চচ্চড়ি

নিরামিষ খেতে যেমন আমরা সবাই ভালবাসি, ঠিক তেমনি কুমড়ো বড়ি দিয়ে রান্না খাবারও সবার প্রিয়। কুমড়ো বড়ি মাছ, মাংস, ডিম, কলিজা ইত্যাদির সাথে রান্না করে খাওয়া যায়। তাছাড়াও প্রতিটি সবজি দিয়েও কুমড়ো বড়ির নিরামিষ খাওয়া যায়। তার মধ্যে কুমড়ো বড়ি ও বেগুন চচ্চড়ি খেতে অনেক সুস্বাদু ও মজাদার। উপকরণ: বেগুন, আলু, কুমড়ো বড়ি, পেয়াজ কুচি, আদা, রসুন, জিরা বাটা, লবণ, হলুদ, মরিচ, ধনে গুড়া, তেল। প্রস্তুত প্রণালী: প্রথমে একটি প্যানে পরিমান মত তেল দিয়ে আচ দিন। তারপর পরিমান মত কুমড়ো বড়ি তেলের মধ্যে ছেড়ে দিন। কুমড়ো বড়িগুলো হালকা বাদামী রঙ এ ভে...

ভেজিটেবল নিজামী শিক

আপনার পছন্দ মত সবজি দিয়ে তৈরি করতে পারেন সুস্বাদু ভেজিটেবল নিজামী শিক। খুব কম সময়ে অল্প খরচে পরিবারের সবার জন্য এই রেসিপিটি পরিবেশন করতে পারেন। উপকরণ: গাজর, মটরশুটি, আলু, বাঁধাকপি, লবণ, আদা বাটা, রসুন ও জিরা বাটা, মরিচের গুড়া, ধনিয়া গুড়া, হলুদের গুড়া ও চিনি। প্রস্তুত প্রণালী: প্রথমে গাজর, আলু, বাঁধাকপি টুকরো করে সাথে মটরশুটি দিয়ে একটি পাত্রে পরিমান মত পানি দিয়ে সিদ্ধ দিন। এবার সিদ্ধ করা সবজি গুলো লবণ, আদা বাটা, রসুন ও জিরা বাটা, মরিচের গুড়া, ধনিয়া গুড়া, হলুদের গুড়া বাটা এবং চিনি দিয়ে মাখিয়ে ৫ মিনিট রেখে দিন। ৫ মিনিট পর মাখ...

টমেটো ও বরই চাটনি

উপকরণ: টমেটো ৫/৬টি, শুকনো বরই ৮/১০টি, তেতুলের রস, পিয়াজ, রসুন, তেজপাতা, পাঁচফোরন, লবন, সামান্য চিনি/গুড়, চটপটি মশলা, শুকনো মরিচ, ও তেল(সরিষা/সয়াবিন)। প্রণালী: প্যানে তেল গরম হলে প্রথমে কাটা পিয়াজ ও রসুন দিন। হালকা লাল হলে শুকনো মরিচ, তেজপাতা ও পাঁচফোড়ন দিয়ে নাড়ুন। এরপর টমেটো কুচি ও লবন দিয়ে ঢেকে দিন। টমেটো সিদ্ধ হলে চিনি/গুড় দিয়ে আবারও ঢেকে দিন।ফুটতে থাকবে যখন, তখন শুকনো বরই দিয়ে আরও কিছুক্ষণ ঢেকে রাখুন। সবশেষে নামানোর আগে চটপটি মশলা দিয়ে নামিয়ে নিন।

মজাদার মুলা ভর্তা

উপকরন -- মুলা ১টা, পিয়াজ কুচি ২টা , শুকনো লাল মরিচ ৫টা, লবন পরিমান মতো , শরিসার তেল ২ টেবিল চামচ , চিংড়ি মাছ কুচি করা আধা কাপ , ধনেপা...

কচুর লতির কোরমা

স্বাদে মজাদার একটা অসাধারণ খাবার সহজ প্রস্তুত প্রণালী যা পরিবারের সবাই পচ্ছন্দ করবে। উপকরণ: কচুর লতি, নারিকেলের দুধ, গোল মরিচ, কাচা মরিচ, জিরা বাটা, হলুদ, লবণ, তেল, আদা বাটা, পেয়াজ , রসুন বাটা, ভাজা জিরা গুড়া। প্রণালী: প্রথমে কচুর লতিকে ছোট ছোট করে কেটে ভাল করে ধুয়ে সামান্য হলুদ ও লবণ দিয়ে মাখিয়ে রাখুন। তারপর রান্নার পাত্রটি চুলায় দিয়ে তাতে পরিমান মত তেল দিয়ে তাপ দিন এবং বাটা মসলা গুলো তেলে দিয়ে নাড়তে থাকুন । দুই মিনিট পর নারিকেলের দুধ দিয়ে দিন। নারিকেলে দুধ আর মসলা নাড়তে থাকুন তারপর হলুদ ও লবণ মাখানো কচুর লতি মসলার মধ্যে ঢেল...

সরিষা পটল

সরিষা পটল সচরাচর পরিবারে খুব কম খাওয়া হয় তবে খুব অল্প সময়ে সুস্বাদু এই রেসিপিটি তৈরি করা যায়। উপকরণ: পটল, সরিষা বাটা, আদা, রসুন, পেয়াজ বাটা, কাচা মরিচ মিহি বাটা বা ফালি করা, সামান্য দারুচিনি ও জিরা বাটা, হলুদ, লবণ, তেল, পেয়াজ কুচি ও ধনিয়া পাতা। প্রণালী: প্রথমে গোটা গোটা পটল এর খোসা বটি দিয়ে আছড়িয়ে পটলের দুই পাশে হালকা ফালি করে নিতে হবে যেন মসলা গুলো গোটা পটলের মধ্যে ঢুকতে পারে। পটল গুলো ভাল করে ধুয়ে সামান্য লবণ ও হলুদ দিয়ে মাখিয়ে রাখুন দুই-তিন মিনিট। তারপর রান্নার পাত্রে তেল গরম করে গোটা গোটা লবণ ও হলুদ দিয়ে মাখানো পটল তাতে ছেড...

পেপে ডাল

পুষ্টি ও স্বাদের সুসমন্বয় আছে খাবারটিতে। গরম ভাতের সাথে খেতে বেশ মজা এই পেপে ডাল। উপকরণ: পেপে, মুগ ডাল, সয়াবিন তেল, আদা বাটা, কাচা মরিচ, লবন, হলুদ ও পাঁচ-ফোরন। প্রণালী: পেপে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে ভাপে সিদ্ধ করে নিন। ডাল সিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার গরম তেলে পাচ ফোরন , লবন, সামান্য আদাবাটা দিন। একটুপরে ডাল ও ভাপে সিদ্ধ করা পেপে দিয়ে নাড়াচাড়া করে সামান্য হলুদ ছিটিয়ে দিন। অল্প পানি দিয়ে চুলার আঁচ কমিয়ে দিন। এবার মরিচ দিন। মাখা মাখা হয়ে এলে নামিয়ে গরম গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন।