সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

t-shirt-summer.jpg

ফ্যাশনেবল গরমে টি-শার্টে স্বাচ্ছন্দ্য

বছর কয়েক আগেও ফ্যাশনেবল এসব টি-শার্টের এত বেশি রমরমা প্রচলন ছিল না। তখন টি-শার্টের জায়গায় ফতুয়ার প্রচলনটা একটু বেশিই ছিল। কিন্তু এখন ফতুয়ার কদর কমে গিয়ে বেড়েছে বাহারি ধরনের টি-শার্টের সমাদর।

প্রত্যেকটা মানুষ আরামপ্রিয়। জীবন-যাপনে সে থাকতে চায় স্বচ্ছন্দ। জীবনে স্বাচ্ছন্দ্য আনতে চলাফেরায় আনে নানান পরিবর্তন। এসব পরিবর্তনের মাঝে বেশভূষার পরিবর্তন গুরুত্বপূর্ণ একটি। জীবনে আরাম আনতে ব্যবহার করে সময়ের উপযোগী পোশাক। আরামের পাশাপাশি ফ্যাশনটাকে প্রাধান্য দিয়ে থাকে। তাই যখন যে পোশাক পরলে আরামের পাশাপাশি নিজেকে ফ্যাশনেবল করা যায় সেদিকেও খেয়াল রাখতে হয়। এখন আমাদের এখানে চলছে গরমকাল। আর গরমের অস্বস্তি থেকে বাঁচতে টি-শার্ট হতে পারে ফ্যাশন এবং আরামের অন্যতম একটা অংশ। টি-শার্টের ব্যবহার তরুণদের মধ্যে বেশি লক্ষ করা যায়।

বছর কয়েক আগেও ফ্যাশনেবল এসব টি-শার্টের এত বেশি রমরমা প্রচলন ছিল না। তখন টি-শার্টের জায়গায় ফতুয়ার প্রচলনটা একটু বেশিই ছিল। কিন্তু এখন ফতুয়ার কদর কমে গিয়ে বেড়েছে বাহারি ধরনের টি-শার্টের সমাদর।

ফ্যাশন হাউস মেঘের কর্ণধার মিল্টন বলেন, গ্রীষ্মের সময় আরামের পোশাক হিসেবে টি-শার্টের জুড়ি নেই, বিশেষ করে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া শিক্ষার্থী বা ফ্যাশন সচেতনদের কাছে। এছাড়া তুলনামূলক অন্য পোশাকের চেয়ে টি-শার্টের দামও হাতের নাগালে। তাই একাধিক টি-শার্ট ব্যবহারেরও সুযোগ থাকে। এছাড়া একই প্যান্টের সঙ্গে মানিয়ে পরা যায় একাধিক রঙ ও নকশার টি-শার্ট। আর এ বিষয়টিকে মাথায় রেখে এবার আমরা কিছু ভিন্ন ডিজাইনের টি-শার্ট এনেছি।

পছন্দের টি-শার্ট:
ডিজাইন বাদে একঢালা টি-শার্ট বয়স্ক ব্যক্তিরা বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকে। এগুলোর প্রতি একটু বয়স্ক ব্যক্তিরাই বেশি প্রাধান্য দেন। শুধু সামনের দিকে লিখে ডিজাইন ও সামনে-পেছনে অ্যাম্ব্রয়ডারি করা টি-শার্ট তরুণরা পছন্দ করে থাকে। এছাড়া সামনে-পেছনে পছন্দের তারকা কিংবা বিপ্লবী কোনো নেতার ছবি দিয়ে ডিজাইন করা টি-শার্টও তরুণদের পছন্দ। আর শিক্ষার্থীরা পছন্দ করে থাকে সামনে পেস্টের ছাপ ও পেছনে সামান্য লেখা টি-শার্ট।
 
টি-শার্ট পড়বেন:
রং ও ডিজাইনে বৈচিত্র্য থাকায় সহজেই প্যান্ট কিংবা জুতা এমনকি রোদচশমার সাথে ম্যাচিং করে পরা যায়। কাপড় কোমল এবং পাতলা হওয়ায় এই গরমে পরতে বেশ আরামদায়ক। নিতান্তই খুব দামি ব্র্যান্ড না হলে দামও একেবারে নাগালের মধ্যে। ফলে শিক্ষার্থীসহ সব শ্রেণি-পেশার মানুষ বেশ উপভোগ করতে পারেন।
 
পেতে পারেন:
দিন দিন টি-শার্টের কদর বাড়ায় ফুটপাত থেকে শুরু করে বিভিন্ন সুপার শপে এমনকি অনলাইন থেকেও সহজে আপনার পছন্দের টি-শার্টটি কিনতে পারবেন। বসুন্ধরা সিটি শপিং মল, নিউ মার্কেট, ফরচুন শপিং মল, কর্ণফুলী মার্কেট, মৌচাক মার্কেট, ইস্টার্ন প্লাজা, যমুনা ফিউচার পার্কসহ নিউ এলিফ্যান্ট রোডের বিভিন্ন দোকানে টি-শার্ট পাবেন। তবে শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটে ফ্যাশন হাউস নিত্য উপহার, মেঘ, পৌষ, নোঙর, সমীকরণ, বালুচর, ইজি, দেশাল, সুই-সুতা, কারখানা, নিত্য উপহার, বাবুইসহ বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসে টি-শার্ট পাবেন।

খরচ পড়বে:
টি-শার্টের দাম নির্ভর করে এর রং, ফেব্রিক্স ও ডিজাইনের ওপর। ছেলে ও মেয়েদের টি-শার্টের কাট ও নকশায় পার্থক্য থাকলেও দাম প্রায় একই রকম।  এসব টি-শার্ট কেনা যাবে ২৩০ থেকে ৪৫০ টাকার মধ্যে। বাচ্চাদের টি-শার্টের দাম পড়বে ১৮০ থেকে ৩০০ টাকার মধ্যে। এছাড়া ব্র্যান্ডের টি-শার্টগুলোর দাম পড়বে ৫০০ থেকে ৯০০ টাকার মধ্যে।

এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

tshirt, fashion, trend, lifestyle, young, youth, life